কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি?

কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি? ডাইন্যামিক এবং স্ট্যাটিক আইপি কি?

নেটওয়ার্কিং হল একে অপরের সাথে সংযোগ ঘটানোর একটি মাধ্যম।  সে দিক থেকে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম যা আমাদের ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড থাকতে সহায়তা করে।  মোবাইল ফোনের বদৌলতে আমরা নেটওয়ার্ক সম্পর্কে মোটামুটি ধারনা রাখি। কিন্তু আমরা যতটুকু জানি কম্পিউটার নেটওয়ার্ক এর থেকেও বিশাল। আমাদের আজকের পোস্টে আমরা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি? স্ট্যাটিক এবং  ডায়নামিক আইপি সম্পর্কে জানব। তো চলুন শুরু করা যাক। 

কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি?

দুই বা তার অধিক কম্পিউটারের মধ্যকার সংযোগ কে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক বলা হয়। দুইটি কম্পিউটারের মধ্যে ডাটা এবং রিসোর্স আদান-প্রদান করার জন্য কম্পিউটার নেটওয়ার্ক তৈরি। কম্পিউটার নেটওয়ার্ককে আমরা ইন্টারনেট বলতে পারি। শুধু যে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক তৈরি ও ব্যবহার করে এমন নয়। কম্পিউটারের সাথে সাথে প্রিন্টার, স্ক্যানার, ব্লুটুথ, ইনফ্রারেড ইত্যাদি নেটওয়ার্ক দ্বারা পরিচালিত হয়। ইন্টারনেটকে নেটওয়ার্কিং এর সব থেকে বড় উদাহরণ বলা হয়।

 কোন অফিসে বা ওয়ার্কপ্লেসে ডাটা আদান-প্রদান করার জন্য ফিজিক্যাল পদ্ধতি অনেক সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। অন্যদিকে একই কাজ কম্পিউটার থেকে কম্পিউটারে ইন্টারলিঙ্কিং করে দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রেরণ ও গ্রহণ করা সম্ভব। ১৯৬০ সালে যখন ইন্টারনেট আবিষ্কৃত হয় তারপর থেকে নেটওয়ার্ক ধারনার উন্নতি হতে থাকে। বর্তমান আমরা যে ২জি, ৩জি, ৪জি, ৫জি, ল্যান, ওয়্যান, ওয়াইফাই ইত্যাদি সম্পর্কে জানি এগুলো সবকিছুই কম্পিউটার নেটওয়ার্ক এর অন্তর্গত।

কম্পিউটার নেটওয়ার্কের প্রকারভেদ

কম্পিউটার নেটওয়ার্ক প্রধানত ৪ প্রকার। নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

PAN/প্যান: পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা প্যান কাজ করে ব্যক্তিগত নেটওয়ার্ক নিয়ে। পার্সোনাল ডিভাইস একে অপরের সাথে সংযুক্ত রাখার জন্য প্যান ইউজ করা হয়। যেমন ধরুন আপনি আপনার বাসায় প্রিন্টার, স্ক্যানার আপনার কম্পিউটারের সাথে কানেক্ট করে ইউজ করেন। এখন এখানে আপনাকে অনেকগুলো ডিভাইস অ্যাড করতে হচ্ছে না। অথবা পুরো নেটওয়ার্ক আপনি গোপনে নিজের দরকারি কাজে ইউজ করছেন। একটি রুম বা ১০ মিটার জায়গার জন্য প্যান পারফেক্ট।

কীভাবে এন্ড্রয়েড ফোন হ্যাক করা যায়?

 LAN/ল্যান: লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা ল্যান কয়েকটি প্যান কানেকশন নিয়ে তৈরি হয়। প্যান কানেকশনের একটি সীমাবদ্ধতা আছে যে এখানে আপনি নতুন ডিভাইস/নেটওয়ার্ক অ্যাড করতে পারবেন না। কিন্তু এদিক থেকে ল্যান আপনাকে একটি নির্দিষ্ট সংখ্যা পর্যন্ত নেটওয়ার্ক বাড়ানোর ক্ষমতা দেবে। ছোট পরিসরে কম্পিউটার টু কম্পিউটার সংযোগ ঘটানোর জন্য ল্যান ইউজ করা হয়। আমরা যারা কম্পিউটার ইউজ করি তারা ল্যান সম্পর্কে মোটামুটি জানি। 

একটি বিল্ডিং, অফিস, হাসপাতাল ইত্যাদি জায়গায় ল্যান ইউজ করা হয়। ল্যান সেটআপ করা খুব সহজ এবং এর ব্যয় খুব কম। পুরো নেটওয়ার্ক সেটআপ করার জন্য আপনার হাব এবং সুইচ দরকার পরবে। আপনি নেটওয়ার্ক এরিয়া বিস্তৃত করতে চাইলে নেটওয়ার্ক বুস্টার বা রিপিটার ইউজ করতে পারবেন।

MAN/ম্যান: শুধু একটি শহর বা নির্দিষ্ট কোন জায়গায় নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য মেট্রোপলিটন এরিয়া নেটওয়ার্ক ইউজ করা হয়। সাধারণত কয়েকটি ল্যান নেটওয়ার্ক কানেকশন নিয়ে ম্যান তৈরি হয়। ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার এলাকার ল্যান নেটওয়ার্ক একে অপরের সাথে সংযোগ তৈরি করার জন্য ম্যান কানেকশন কাজ করে।

WAN/ওয়্যান: ইন্টারনেটের মূল ভিত্তি হলো ওয়্যান বা ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক। এটি একই সাথে প্যান, ল্যান এবং ম্যান কানেকশন ইউজ করে। একটি কম্পিউটার থেকে শুরু করে পৃথিবীর যতগুলো কম্পিউটারে ইন্টারনেট চলে তারা সকলেই ওয়্যান এর দ্বারা কানেক্টেড।   

আইপি কি? 

আইপি বা ইন্টারনেট প্রোটোকল হলো একটি সিস্টেম যা এই বিশাল ইন্টারনেটের দুনিয়ায় আপনার পার্সোনাল ঠিকানা। আমরা জানি ইন্টারনেট ডাটা আদান প্রদান করা হয়। আর এই ডাটা সেন্ড এবং রিসিভ হওয়ার জন্য একটি ঠিকানা দরকার। ঠিকানা বিহীন চিঠি কখনোই তার গন্তব্যে পৌঁছাবে না। আইপি হলো ইন্টারনেটে আপনার ঠিকানা।

ডাইন্যামিক আইপি

ডাইন্যামিক আইপি প্রতিটি কানেকশন ব্রেকে পরিবর্তন হয়। ধরুন আপনি মোবাইলের ডাটা অন করলেন এবং সাথে সাথে আপনার ডিভাইসের সাথে একটি আইপি অ্যাড হয়ে গেলো। আবার যখন ডাটা অফ করে আবার অন করবেন তখন আগের আইপি আর থাকবে না।

আমরা আইএসপি থেকে নিয়ে যে ব্রডব্যান্ড ইউজ করি সেখানে সাধারণত ডাইন্যামিক আইপি দেওয়া হয় বেশি। এই আইপির সিকিউরিটিগত সুবিধা অনেক। কারন কোন নির্দিষ্ট আইপি না থাকার কারনে হ্যাকার আপনাকে সহজে খুঁজে পাবে না। আবার খুঁজে পেলেও আইপি পরিবর্তন হওয়ার কারনে আপনার ডিভাইস হারিয়ে ফেলবে।

ডাইন্যামিক আইপির অনেক সুবিধা আছে। বারবার পরিবর্তন হওয়ার কারনে আইপি সংকট হয়না। কানেকশন সেটআপ করার জন্য কোন টেকনিক্যাল নলেজ লাগেনা। আপনার ডিভাইসে ইথারনেট ক্যাবল লাগালেই DHCP এর আন্ডারে অটোমেটিক আইপি অ্যাসাইন হয়ে যায়।

ডাইন্যামিক আইপি যুক্ত কানেকশনের মূল্য স্ট্যাটিক আইপির থেকে কম হয়। এই আইপি দিয়ে সার্ভার তৈরি করা যায়না। শুধু পার্সোনাল ইউজের জন্য ডাইন্যামিক আইপি উপযুক্ত। কিন্তু আপনি যদি ওয়েব সার্ভার, ফাইল সার্ভার বা এধরনের কোন সার্ভিস তৈরি করে চান তাহলে ডাইন্যামিক আইপি দিয়ে হবে না।

কিছু কিছু সার্ভিস আছে যেখানে আইপি চেঞ্জ হওয়ার কারনে অনেক সময় ব্যান করে দিতে পারে। তবে ম্যাক অ্যাড্রেস থাকার কারনে এই ঝুঁকি অনেকটাই কম কিন্তু তারপরেও ঝুঁকি থেকেই যায়।

স্ট্যাটিক আইপি

নির্দিষ্ট এবং অপরিবর্তনীয় আইপি কে স্ট্যাটিক আইপি বলে। এই আইপি কে আমরা ডেডিকেটেড বা রিয়েল আইপি নামেও চিনি। বিশেষ করে ওয়েব সার্ভার, ফাইলে সার্ভার বা এধরনের সার্ভিসের জন্য স্ট্যাটিক আইপি ইউজ করা হয়। বড় বড় কোম্পানি গুলো তাদের বিজনেসের জন্য স্ট্যাটিক আইপি ইউজ করে।

স্ট্যাটিক আইপি ডাইন্যামিক আইপি থেকে একটু বেশি দামী হয়ে থাকে। কারন ডাইন্যামিক আইপি আপনার কন্ট্রোলে থাকে না কিন্তু অপরদিকে স্ট্যাটিক আইপি সম্পূর্ণ আপনার কন্ট্রোলে থাকে। আপনি স্ট্যাটিক আইপি ইউজ করে আপনার ডিভাইসের যেকোনো পোর্ট ওপেন এবং ক্লোজ করে ইউজ করতে পারবেন।

বিশ্বসেরা ৫ টি হ্যাকিং গ্রুপ

একটা সেম রুটে চলাচল করার কারনে ইন্টারনেট কানেকশন অপেক্ষাকৃত দ্রুত কাজ করে এবং আপনার প্রাইভেসি সুরক্ষিত থাকে। ডাইন্যামিক আইপি ব্যবহার করলে যেখানে আপনাকে অন্যের আইপি ইউজ করতে হয় সেখানে স্ট্যাটিক আইপিতে তা একেবারে ভিন্ন।

আইপি পরিবর্তন হয়না জন্য যেকোনো রিমোট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন টুল সহজেই ইউজ করতে পারবেন। একবার কানেক্ট হওয়ার পর আর কানেকশন লস্ট হবে না। এত সুবিধা থাকার পরেও এর কিছু অসুবিধা আছে।

স্ট্যাটিক আইপি সেটআপ করা একটু কঠিন। কারন এই আইপি সরাসরি আপনার ডিভাইসের সাথে কানেক্ট করে দিতে হয়। আপনার ডিভাইসে যদি একের অধিক নেটওয়ার্ক অ্যাডাপ্টার থাকে তাহলে নির্দিষ্ট অ্যাডাপ্টারের ম্যাক অ্যাড্রেসের সাথে স্ট্যাটিক আইপি কনফিগার করে নিতে হবে। কোন কারনে অ্যাডাপ্টার পরিবর্তন করার প্রয়োজন পরলে আপনাকে নতুন করে কনফিগার করে নিতে হবে।

স্ট্যাটিক আইপি ব্যবহার করলে অনেক সময় সিকিউরিটি সমস্যায় পরতে হয়। যেহেতু আইপি পরিবর্তন হয়না সেহেতু একবার আপনার আইপি হ্যাকারের কাছে গেলে সে নিশ্চিন্তে সময় নিয়ে বিভিন্ন অ্যাটাক পরিচালনা করতে পারবে। আর একবার অ্যাক্সেস পেয়ে গেলে আপনার অজান্তেই বারবার আপনার সিস্টেম অ্যাক্সেস করতে পারবে।

আইপি ইন্টারনেট দুনিয়ায় আপনার একমাত্র পরিচয়। বাস্তব জীবনে সবাই যেমন আপনার নাম ধরে আপনাকে চিনে অনলাইনে আইপি তেমনি আপনার ডিভাইসের নাম। পুরো আর্টিকেল পরে আমরা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি? কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কীভাবে কাজ করে এবং ডাইন্যামিক এবং স্ট্যাটিক আইপি সম্পর্কে জানলাম। আশাকরি আইপি সম্পর্কে আপনাদের প্রাথমিক ধারণা হয়েছে। আইপি সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জানাবেন ধন্যবাদ।  

Leave a Reply