গুগল থেকে ইনকাম করার উপায়

গুগল থেকে ইনকাম করার উপায়

দিন দিন মানুষের মাঝে ঘরে বসে ইনকাম করার প্রবনতা ক্রমশ বেড়েই চলছে।মানুষ নিজের দক্ষতা ও পছন্দকে কাজে লাগিয়ে নিজ নিজ ক্ষেত্রে ভালো মানের টাকা অর্জন করছে। অনেকেই আবার দ্বিধায় পড়ে যাই, আসলেই কি অনলাইনে ইনকাম করা যায়।কিন্তু এখন সত্যিই অনলাইন ইনকাম করার অনেক মাধ্যম তৈরি হয়েছে যা ১০০% বিশ্বাসযোগ্য।

অনলাইনে ইনকাম করার অন্যতম একটি উৎস হচ্ছে গুগল।কিন্তু গুগল নামটা শুনলেই অনেকের  মাথায় সার্চ ইঞ্জিন ছাড়া অন্য কিছু আসে না।“গুগল থেকে আবার টাকা ইনকাম করা যায় নাকি?আপনি পাগল নাতো? “উত্তরে বলবো অবশ্যই যায়। আপনি গুগলে কাজ করবেন আর গুগল আপনাকে টাকা দিবে শেষ।হ্যাঁ অনেকটা গুগলে চাকরি করার মতো। আপনিও যদি গুগল থেকে আয় করতে চান তাহলে আমাদের আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়ে ফেলুন।ঘরে বসে গুগল থেকে আয় করার উপায় গুলো সম্পর্কে জেনে নিন।

গুগল কি?

গুগল থেকে আয় করতে চান কিন্তু গুগল সম্পর্কেই  সঠিক ধারনা নেই?  তাহলে  গুগল থেকে আয় কিভাবে করবেন?  তাই গুগল থেকে আয় করার আগে জেনে নিন গুগল আসলে কি?

গুগল সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য

 আপনার মনে প্রশ্ন আসতে  পারে যে গুগল নামের মানে কি? আসলে গুগল শব্দের আভিধানিক কোন অর্থ  নেই।গুগল নামটি  গাণিতিক হিসাব গোগল (googol) কে  ভুল করে লেখার ফলে এসেছে। এর অর্থ হল   ১ এর পর একশোটি শূন্য। এগুলো শুনে আপনার মনে হতে পারে গুগলের কাজ হিসাব নিকাশ নিয়ে। কিন্তু  গুগলের কাজকর্ম আসলে হিসাব নিকাশের মধ্যে  সীমাবদ্ধ নয়। গুগলের কাজের পরিসর অনেক বৃহৎ।আপনি জানলে অবাক হবেন যে অ্যান্ড্রয়েড,ইউটিউব, অ্যাডসেন্স-এসব প্রতিষ্ঠানের মালিক ও হল গুগল। 

আসলেই কি গুগল থেকে ইনকাম করা যায়?

বিশ্বের সব থেকে বড় কোম্পানি গুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে গুগল। গুগল হচ্ছে এমন একটি আমেরিকান মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি যা ইন্টারনেটের সাথে জড়িত বিভিন্ন পন্য ও সেবার সাথে জড়িত।সার্চ ইঞ্জিন,হার্ডওয়ার, সফটওয়্যার,অনলাইন বিজ্ঞাপন, ক্লাউড কম্পিউটিং(ওয়েব হোস্টিং), বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট রয়েছে গুগলের। গুগলের আরও অনেক সার্ভিস রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি প্রতিদিন অনায়াসে ইনকাম করে নিতে অনেক টাকা। চলুন তাহলে গুগল থেকে আয় করার উপায়  গুলো জেনে নেই-

ব্লগিং করে টাকা ইনকাম 

অনলাইনে ব্লগিং এর চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। স্টুডেন্ট, চাকুরীজীবি যে কেউ ব্লগিং এর পেশা বেছে নিচ্ছেন। বাংলাদেশের অনেক ব্লগার শুধু ব্লগিং করেই মাস শেষে  হাতিয়ে নিচ্ছেন বেশ হ্যান্ডসাম এমাউন্টের টাকা।একটি জনপ্রিয় ও ভিজিটর থাকা ব্লগ থেকে প্রতিদিন অনেক টাকা ইনকাম করা যায়। 

 ব্লগিং কি?

আমারা সবাই ব্লগ শব্দটির সাথে  কমবেশি পরিচিত। ব্লগিং  কারো জন্য  অনলাইন থেকে আয় করার একটি উপায়। আবার  কারো জন্য  অনলাইনে কিছু জানা বা শেখার একটি প্লাটফর্ম।

সহজে বলতে গেলে ব্লগ হচ্ছে  একটি অনলাইন ডায়েরীর মত। আপনার ব্লগে আপনি আপনার মনের মত টপিক নিয়ে লিখতে পারেন।  আর এগুলো শেয়ার করে দিতে পারেন পুরো পৃথিবীর মানুষের সাথে।  

ব্লগ থেকে ইনকাম করার ধাপসমূহ-

● সর্বপ্রথম গুগল এর blogger.com ওয়েবসাইটে একটি    blog তৈরি করতে হবে।

অথবা  ভাল কোন ওয়েব ডেভেলপার দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরী করাতে হবে। 

● ব্লগের জন্য একটি ডোমেইন নেইম বেছে নিতে হবে।

● নিজের ব্লগের জন্য একটি  simple, lightweight এবং fast থিম বা  template বেছে নিতে হবে।

● ভালো মানের,  high quality ও unique আর্টিকেল প্রকাশ করার চেষ্টা করতে হবে।

● আর্টিকেলগুলো গুগলে ভালো রাঙ্ক করতে পারে তার জন্য ‘ওন পেইজ এসইও’ এবং ‘অফ পেইজ এসইও’ ভালো করে করতে হবে।

● তারপর ব্লগে ভালো পরিমান ট্রাফিক আসা শুরু করলে ‘গুগল এডসেন্স’এর জন্য আবেদন করুন।

● গুগল এডসেন্স থেকে অনুমতি পেয়ে গেলে আপনি নিজের ব্লগে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন।

● তাছাড়াও ভালো পরিমান ভিজিটর্স আনতে পারলে,এফিলিয়েট মার্কেটিং থেকেও প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

● যখন ১০০$ হয়ে যাবে ব্যাংক চেকের মাধ্যমে টাকা তুলে নিতে পারবেন।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করার উপায়  

বর্তমানে বিশ্বে ইউটিউব অন্যতম ভিডিও শেয়ারিং প্লার্টফর্ম। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কন্টেন্ট আপলোড হচ্ছে ইউটিউবে। সেখান থেকেই ইনকাম করে নিচ্ছে অনেকেই। ইউটিউব চ্যালেনে যখন ১০০০হাজার সাবস্ক্রাইব আর ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম হয়,তখন গুগল এডসেন্স এর সাথে চ্যানেল মনিটাইজ করে গুগল থেকে ইনকাম করতে পারবেন।  

ইউটিউব থেকে ইনকাম করার ধাপসমূহ-

● প্রথমে  youtube.com থেকে একটি চ্যানেল তৈরি করুন।

● চ্যানেলের সুন্দর নাম,কভার ফটো ও সুন্দর লগো তৈরি করুন।

● ভিডিওতে   customs thumbnail ব্যবহার করুন।

● একটি স্ট্যান্ডার্ড ভিডিওর জন্য tittle,tag,description  দিন।

● বেশি বেশি ভিউয়ারস আনার জন্য শেয়ার করুন ভিডিওটি।

● ১০০০হাজার সাবস্ক্রাইবার করুন।

● আপনার চ্যানেলের এর সাথে গুগল এডসেন্স জুড়ে দিন।

● আপনার চ্যানেল মনিটাইজ হয়ে গেলেই আপনার ভিডিওতে বিজ্ঞাপন আসা শুরু করবে।

● ১০০$ হলেই আপনি ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা তুলে নিতে পারবেন।

আর এভাবেই আপনি গুগল ইউটিউবের মাধ্যমে  ইনকাম করতে পারবেন।  

উইকিপিডিয়া কি? উইকিপিডিয়া কিভাবে কাজ করে?

গুগল প্লে স্টোর থেকে ইনকাম

দৈনন্দিন জীবনে আমরা  Android application ছাড়া চলতে পারি না।হোক তা ঘুম থেকে উঠে ফেসবুক স্ক্রল,অবসরে গেমস বা গান শোনা সবকিছুতেই এ্যাপসের ব্যবহার।কখনো ভেবে দেখেছেন এই এ্যাপসও কিন্তু আয়ের একটি উৎস।চলুন জেনে নেই এ্যাপস বৃত্তান্ত।  প্রথমত এ্যাপসের ডেভেলপাররা গুগল প্লে স্টোরে জমা দেন, তারপর খেয়াল করে থাকবেন এই এ্যাপস ব্যবহারের সময় কিছু বিজ্ঞাপন আসে। আর এ বিজ্ঞাপন দেখিয়েই ডেভেলপাররা ইনকাম করেন।

প্লে স্টোর থেকে ইনকাম করার ধাপসমূহ-

● সর্বপ্রথম এ্যাপস নিয়ে ভাববেন,আপনি কোন বিষয়ে এ্যাপ তৈরি করবেন।

● তারপর তৈরি করবেন এন্ড্রয়েড এ্যাপলিকেশন।

● এখন গুগল এডমবে গিয়ে একটি একাউন্ট খুলুন।  

● নিজের বানানো এ্যাপলিকেশনে বিজ্ঞাপন লাগাতে হবে।

● গুগল প্লে কনসোলে একটি একাউন্ট তৈরি করুন।

● তারপর প্লে স্টোরে পাবলিশ করুন।

● এবার সোশ্যাল মিডিয়া বা অনলাইন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ্যাপটির প্রোমোশন করুন।

● যত বেশি ইনস্টলেশন করবে,ততবেশি বিজ্ঞাপন দেখার সম্ভবনা।

● আর যত বেশি বিজ্ঞাপন দেখবে, তত বেশি ইনকাম।

 এভাবেই গুগল প্লে থেকে আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

শেষ কথা

 অনলাইনে আয় করার উপায়  খুঁজে অনেকেই হয়রান হচ্ছে। তবুও নিজের জন্য আদর্শ কোন প্লাটফর্ম পাচ্ছে না। এর  কারন  হল,আপনি অনেক ধরনের কাজই শুরু করছেন।  কিন্তু, আপনার জন্য আসলে কোন কাজটি সঠিক তা বুঝে উঠতে পারছেন না। অথবা আপনি আপনার কাজের পেছনে যথেষ্ট  সময় ও পরিশ্রম দিচ্ছেন না।তাই আগে যে কোন  সম্পর্কে সময় নিয়ে জানার চেষ্টা করুন।  আর আপনার জন্য সবচেয়ে লাভজনক  কাজটি খুঁজে বের করুন। আপনার পছন্দের প্লাটফর্মটি খুঁজে বের করার জন্য আমরা আপনাকে গুগল থেকে আয় করার ভিন্ন ভিন্ন উপায় বলেছি।

অনলাইনে ইনকাম করতে হলে ইচ্ছাশক্তি আর দৃঢ় মনোবলও প্রয়োজন।  আপনার মতই কেউ না কেউ গুগল থেকে ইনকাম করে নিচ্ছে অনেক টাকা,তাহলে আপনি কেন পারবেন না?তাই আজই শুরু করে দিন গুগল থেকে আয় করা। আশা করি,গুগল থেকে কিভাবে  অনলাইনে  আয় করা যায় সে  প্রশ্নের উত্তর  আমরা দিতে পেরেছি। তাই আমাদের দেয়া দিক নির্দেশনা কাজে লাগিয়ে আপনিও Google থেকে অনলাইনে টাকা আয় করতে পারবেন খুব সহজেই। 

Leave a Reply