অ্যাড নেটওয়ার্ক

সেরা ৬ টি গুগল অ্যাডসেন্সের বিকল্প অ্যাড নেটওয়ার্ক

অ্যাড নেটওয়ার্ক

গুগল অ্যাডসেন্স একটি এস্টাবলিশ অ্যাড নেটওয়ার্ক। ট্রাস্ট এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেসের জন্য বিশ্বের সকল ব্লগার এবং ওয়েবসাইট ওনার এই সার্ভিস ইউজ করে। বিশেষত অ্যাডসেন্স ভিজিটরের চাহিদা মত অ্যাড দেখায়। এ কারণে ইম্প্রেশন রেট অনেক বেশি থাকে আর তাই ইম্প্রেশন এবং সিপিসি মিলিয়ে অনেক ভালো মানের অ্যামাউন্ট আয় করা যায়। কিন্তু ধীরে ধীরে অ্যাডসেন্স ইউজ করার রুলস কঠিন হয়ে পড়ার কারণে এর অল্টারনেটিভ নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। এটা ঠিক যে, অ্যাড নেটওয়ার্ক হিসেবে অ্যাডসেন্সের সমতুল্য কোন সার্ভিস অনলাইনে নেই। কিন্তু কিছু কিছু সার্ভিস আছে যেগুলো কাজে এডসেন্স এর মত না হলেও অনেকটা কাছাকাছি। আমাদের আজকের পোস্টে আমরা সেরা ৫ টি গুগল অ্যাডসেন্সের বিকল্প অ্যাড নেটওয়ার্ক সম্পর্কে জানবো।

Media.net

গুগল অ্যাডসেন্সের সব থেকে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী এবং বিকল্প হল Media.net যা ২০১০ সালে প্রতিষ্ঠা তাদের কার্যক্রম শুরু করে। Media.net এ অ্যাপ্লিকেশন করার ২ দিনের মধ্যে তারা জানিয়ে দেয় অনুমোদন দিবে কি দিবে না। যেখানে গুগল সময় নেয় ৭ দিনের মত। এরা মাসিক ভিত্তিতে পেমেন্ট প্রদান করে থাকে। 

অর্থাৎ প্রতি ৩০ দিন পর পর তারা আপনাকে পে করবে। তাদের মিনিমাম পেআউট ১০০ ডলার। অ্যাকাউন্ট অ্যাপ্রুভ করার পর প্রথম তিন মাস তারা মোট পেমেন্টের সাথে ১০% বোনাস যোগ করে দেয়। অর্থাৎ আপনার ইনকাম যদি ১০০ ডলার হয় তাহলে আপনি ১১০ ডলার পাবেন। Media.net প্রথানত কন্টেকচুয়াল অ্যাড নিয়ে কাজ করে। 

ই-কমার্স বিজনেস শুরু করার আগে যা জানা জরুরি

ফলে ধীরে ধীরে তাদের পপুলারিটি বেড়েই চলছে। পেমেন্ট দেওয়ার জন্য তাদের পেমেন্ট গেটওয়ে হলো পেওনিয়ার এবং পেপাল। তবে তাদের সার্ভিস ইউজ করার আগে কনফার্ম হয়ে নিবেন যে আপনার ভিজিটর ইউরোপ বা এমন উন্নত দেশ থেকে আসে না কি অন্য সাধারণ দেশ থেকে আসে। কারণ তাদের পলিসিতে স্পষ্ট করে বলা আছে যে ভিজিটর ইউরোপ এবং আমেরিকা থেকে আসতে হবে।

Propellerads

এটি গুগলের অন্যতম একটি প্রতিদ্বন্দ্বী। এখানে খুব সহজে অ্যাকাউন্ট খোলা যায় এবং তাদের ড্যাশবোর্ড অনেক সহজ। কিন্তু propellerads এ ওয়েবসাইট আপ্রুভ করানো খুব কঠিন। তাদের দেওয়া শর্ত মতে ওয়েবসাইটে মিনিমাম ১০ হাজার ইউনিক ভিজিটর থাকতে হবে। এছাড়াও propellerads অ্যাডাল্ট অ্যাড শো করে যা সচরাচর গ্রহণযোগ্য না। তবে সেটিংস্‌ থেকে আপনি অ্যাডাল্ট অ্যাড বন্ধ করে রাখতে পারবেন।

বর্তমানে propellerads ওয়েবসাইটে পপ আপ, ডিরেক্ট অ্যাড, পুশ নোটিফিকেশন অ্যাড, ব্যানার      এবং মোবাইলে অ্যাড শো করে। শুরুতে তাদের সর্বনিম্ন পেআউট ছিল ২৫ ডলার কিন্তু বর্তমানে তা মাত্র ৫ ডলার। প্রতি সপ্তাহের মঙ্গলবার তারা আপনার অ্যাকাউন্টে থাকা ডলার আপনার পেমেন্ট অ্যাকাউন্টে অটোমেটিক পাঠিয়ে দিবে। পেমেন্ট গেটওয়ে হিসেবে তারা পেপাল, ওয়েব মানি, পেমেন্টস, পেওনিয়ার, স্ক্রিল এবং ডিরেক্ট ব্যাংক ট্র্যান্সফার সাপোর্ট করে।

Infolinks

ইনফোলিংকস অনেক পপুলার একটি অ্যাড নেটওয়ার্ক। বর্তমানে তারা ২ লাখেরও বেশি ওয়েবসাইট তাদের অ্যাড নিয়মিত শো করাচ্ছে। বিশ্বের অনেক বড় বড় কোম্পানি যেমন নাইকি, নেটফ্লিক্স, ভার্জিন এয়ারলাইন্স ইত্যাদি infolinks এ তাদের অ্যাড দেয়।

তারা শুধু ইংরেজি এবং স্প্যানিশ ওয়েবসাইট অ্যাড দেখানোর জন্য সাপোর্ট করে। infolinks এর মিনিমাম পে-আউট ৫০ ডলার। কিন্তু আপনি সরাসরি ব্যাংকে নিতে চাইলে সর্বনিম্ন ১০০ ডলার অ্যাকাউন্টে থাকতে হবে। infolinks এ ব্যানার অ্যাড, নেটিভ অ্যাড এবং ভিডিও অ্যাড শো করানো হয়। অন্যান্য অ্যাড নেটওয়ার্ক থেকে infolinks এ আয় অনেক কম হয়। তবে যদি বেশি ভিজিটর জেনারেট করা যায় তাহলে আয় অনেক বাড়ানো যায়।

আপনি আপনার ইনকাম পেপাল, পেওনিয়ার, ইচেক এবং ব্যাংকের মাধ্যমে রিসিভ করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে পেওনিয়ার অনেক ভালো একটি সার্ভিস যা ঝামেলাহীন ভাবে পেমেন্ট নিতে হেল্প করে।

Adsterra

সচরাচর বাংলা ব্লগে অ্যাড নেটওয়ার্ক ইউজ করতে গিয়ে আমরা অ্যাডসেন্স ছাড়া অন্য কিছু পাইনা, যা অ্যাডসেন্সের মত বা এর থেকে ভালো সার্ভিস দিবে। কিছুদিন আগে পর্যন্ত অ্যাডসেন্স বাংলা সাপোর্ট করতো না। কিন্তু বর্তমানে বাংলা সাপোর্ট করলেও সিপিসি অনেক কম দেয় যা অতি নগণ্য। সে দিক থেকে adsterra গুগলের একটি উত্তম বিকল্প।

এরা সকল ভাষার ওয়েবসাইট সাপোর্ট করে। কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট যদি কোন ভিজিটর না থাকে তাহলে তারা আপনার সাইট আপ্রুভ করবে না। এছাড়া তারা পাইরেটেড গেম/সফটওয়্যার, হ্যাকিং, পর্ণগ্রাফি, ড্রাগ রিলেটেড ওয়েবসাইট অ্যালাও করে না।

তবে ডেটিং, ক্রিপ্টো, গ্যাম্বলিং, ইকমার্স ইত্যাদি ওয়েবসাইট সহ সকল ধরনের ব্লগ সাপোর্ট করে। অ্যাপ্লিকেশন করার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সব কিছু ঠিক থাকলে তারা আপ্প্রভ করে দেয়। adsterra এর মিনিমাম পেআউট ১০০ ডলার। তবে যদি ডিরেক্ট ব্যাংকে পেমেন্ট নিতে চান তাহলে চার্জ লাগবে ৫০ ডলার এবং সর্বনিম্ন পেআউট ১০০০ ডলার।

প্রতি মাসের শুরুতে এবং মাঝামাঝি এই দুই সময় তারা পেমেন্ট করে থাকে। পেমেন্ট গেটওয়ে হিসেবে তারা ওয়েবমানি, ইয়ান্ডেক্স মানি, বিটকয়েন, ওয়্যার ট্র্যান্সফার, ইউনিয়ন পে, মাষ্টারকার্ড, ভিসা কার্ড, Paxum, QIWI ইত্যাদি সার্ভিস ইউজ করে।

Bidvertiser

২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠা পাওয়া bidvertiser অ্যাডসেন্স অল্টারনেটিভ রেস এ নিজেকে মেলে ধরতে পেরেছে। প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পর তারা খুব দ্রুত পপুলার হতে শুরু করে। তাদের পলিসিগত সমস্যা থাকায় তারা অনেকটাই পিছিয়ে পরেছে। যদি এদিকে তারা উন্নতি করতে পারে তাহলে অদূর ভবিষ্যতে অনেক ভালো পর্যায়ে চলে যেতে পারবে।

তারা সাধারণত নেটিভ অ্যাড, পপ আন্ডার, এক্সএমএল, ডিরেক্ট ন্যাভিগেশন এবং পুশ নোটিফিকেশান জাতীয় অ্যাড শো করিয়ে থাকে। তাদের মিনিমাম পেআউট হলো ১০ ডলার। পেমেন্ট গেটওয়ে হিসেবে তারা পেপাল, বিটকয়েন, ব্যাংক ট্র্যান্সফার, সাপোর্ট করে।

ইউআরএল শর্ট করে আয় করার সেরা কিছু ওয়েবসাইট

তারা ওয়েবসাইট ডোমেইন বাদেও টুলবার, এক্সটেনশন, সার্চ বার এবং মোবাইল অ্যাপ মনেটাইজ করে থাকে। যা bidvertiser কে অন্যান্য অনেক অ্যাডনেটওয়ার্ক থেকে আলাদা করেছে। অন্যদিকে তাদের রেফারেল সিস্টেম আছে। যেখানে আপনার রেফারেল প্রথম ১০ ডলার ইনকাম করলে আপনি বোনাস পাবেন ১০ ডলার, ওই সেম রেফারেল যদি ৫০ ডলার ইনকাম করে তাহলে আপনি বোনাস পাবেন ৪০ ডলার।

Evadav

এটি সাইপ্রাসের একটি অ্যাড নেটওয়ার্ক। বর্তমানে তারা ১২ বছর ধরে মার্কেটে তাদের সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। evadav সাধারণত নেটিভ, ইন পেজ, পুশ নোটিফিকেশান, পপ আন্ডার ইত্যাদি অ্যাড দিয়ে থাকে। এখন পর্যন্ত তাদের ৩৩ হাজারের মত পাবলিশার আছে।

Evadav অনেক উন্নতমানের ড্যাশবোর্ড প্রোভাইড করে। তাদের মিনিমাম পেআউট ২৫ ডলার। পেমেন্ট দেওয়ার জন্য তারা পেপাল, ওয়েব মানি, ইয়ান্ডেক্স মানি, ক্যাপাটালিস্ট, পেওনিয়ার, বিটপে, স্ক্রিল, নেটেলার, পে সেফ কার্ড, ইউনিয়ন পে, এয়ার পে, ব্যাংক ট্র্যান্সফার ইত্যাদি সার্ভিস ইউজ করে।

তারা সকল ধরনের ওয়েবসাইট সাপোর্ট করলেও কিছু কিছু ওয়েবসাইট বা সার্ভিস সাপোর্ট করে না। যেমন ড্রাগস, পর্ণগ্রাফি, হ্যাকিং, পাইরেটেড সফটওয়্যার/গেম ইত্যাদি। তবে সর্বোপরি evadav গুগল অ্যাডসেন্স এর একটি উৎকৃষ্ট মানের অল্টারনেটিভ।

সত্যিকার অর্থে গুগল অ্যাডসেন্স বেস্ট একটি অ্যাড নেটওয়ার্ক। তারা অ্যাড ক্লিক বাদেও ইম্প্রেশনের জন্য পাবলিশারদের পে করে থাকে। তারা পেমেন্ট করে অটোমেটিক যার কারণে সময় মত অ্যাকাউন্টে টাকা চলে আসে। এছাড়া ইউজারের মোটিভ বিবেচনা করে অ্যাড দেওয়ার কারণে অনেক ভালো ভিউ আর ক্লিক পড়ে। যাইহোক পুরো লেখায় আমরা গুগল অ্যাডসেন্সের বিকল্প অনেক কয়েকটা অ্যাড নেটওয়ার্ক সম্পর্কে জানলাম। তবে আপনি যদি কম সময়ের মধ্যে মোটামুটি ভালো ইনকাম করতে চান তাহলে Media.net ইউজ করতে পারেন। অন্য দিকে Propellerads ইউজ করে আপনার ওয়েবসাইট বা অনলাইন সার্ভিস মনেটাইজ করে মোটামুটি ইনকাম করতে পারবেন। আশাকরি পুরো লেখা পড়ে অ্যাডসেন্স এর সেরা বিকল্পগুলো সম্পর্কে আপনার সকল ধারণা ক্লিয়ার হয়েছে। অ্যাডসেন্স রিলেটেড কোন কিছু জানার থাকলে কমেন্ট বক্সে আমাদের জানাবেন ধন্যবাদ। 

Leave a Reply