এন্ড্রয়েড এর ১০টি জনপ্রিয় গেমস

এন্ড্রয়েড এর ১০টি জনপ্রিয় গেমস

অবসর সময় কাটানোর জন্য আমরা টিভি দেখি, ঘুরে বেড়াই বা শুয়ে বসে থাকি। আমরা একেকজন একেকভাবে অবসর সময় কাটাতে পছন্দ করি। স্মার্টফোন আমাদের হাতে আসার পর থেকে অবসর কাটানোর ধরন অনেকটাই বদলে গেছে। এখন ইউটিউবে ভিডিও দেখা বাদেও গেম খেলা অনেক জনপ্রিয় এন্টারটেইনমেন্ট। বিশেষ করে তরুণ থেকে যুবক সকল বয়সের মানুষ গেম খেলতে পছন্দ করে। গেম খেলে যে শুধু অবসর সময় পার করা যায় তা নয়। গেম লাইভ স্ট্রিমিং করে যেমন ইউটিউব থেকে ইনকাম করা যায় তেমনি ইন্টারন্যাশনাল গেম টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করা যায়। আমাদের আজকের লেখায় এন্ড্রয়েড এর ১০টি জনপ্রিয় গেম সম্পর্কে জানবো। তো চলুন গেম গুলো সম্পর্কে জেনে নেই।

১০টি জনপ্রিয় গেম

Pubg

প্লেয়ার আননোওন’স ব্যাটল গ্রাউন্ড বা পাবজি একটি মাল্টিপ্লেয়ার ব্যাটল রয়েল গেম। এটি একটি অনলাইন গেম যেখানে আপনাকে টিকে থাকার লড়াই করতে হবে। এখানে একজন প্লেয়ারকে একটি পরিত্যক্ত দ্বীপে প্লেন থেকে ল্যান্ড করানো হয়। একটি দ্বীপে একসাথে মোটামুটি ১০০ জন প্লেয়ার পার্টিসিপেট করে। সেখানে আপনাকে নিজে সেফ থেকে অন্যান্য এনিমি হত্যা করতে হবে। এখানে আপনাকে কোন অস্ত্র দেওয়া হবে না। দ্বীপের বিভিন্ন যায়গা থেকে আপনাকে অস্ত্র খুঁজে বের করে নিতে হবে। আপনি একা বা টিম আকারে খেলতে পারবেন। যখন সকল শত্রু মারা শেষ হবে তখন আপনি বা আপনার টিমকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। পাবজি গেমটির নির্মাতা হল পাবজি কর্পোরেশন যা সাউথ কোরিয়ার গেম নির্মাতা কোম্পানি Bluehole এর একটি ডটার/অধীনস্থ কোম্পানি। পাবজি গেমের কনসেপ্ট নেওয়া হয় জাপানিজ মুভি “ব্যাটল রয়েল” থেকে এবং ২০১৭ সালে প্রথম মাইক্রোসফট উইন্ডোজের জন্য রিলিজ হয়। তারপর পাবজি মোবাইলের জন্য রিলিজ দেওয়া হয়। বর্তমানে এই গেমের পপুলারিটি দিন দিন বেড়েই চলছে।  

FreeFire

ফ্রী ফায়ার একটি অনলাইন ব্যাটল রয়েল গেম যা ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর বেটা হিসেবে রিলিজ দেওয়া হয়। তারপর এর জনপ্রিয়তা ধীরে ধীরে বাড়তেই থাকে। বর্তমানের ফ্রী ফায়ারের দৈনিক অ্যাক্টিভ ইউজার ৮০ মিলিয়নের মত। এটি পাবজির মতই একটি সারভাইভাল গেম। ফ্রী ফায়ার গেমটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান 111 Dots Studio এবং এন্ড্রয়েডের জন্য সিঙ্গাপুরভিত্তিক অনলাইন গেম ডেভেলপার কোম্পানি Garena পাবলিশ করে। এটি মাল্টিপ্লেয়ারে সিঙ্গেল অথবা টিম আকারেও খেলা যায়। এখানে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট কানেক্ট করে সরাসরি ফেসবুক ফ্রেন্ডদের সাথে খেলতে পারবেন। তরুণ এবং যুবক গেমারদের মধ্যে ফ্রী ফায়ার অনেক জনপ্রিয় একটি গেম। ইতিমধ্যে গুগল প্লে ষ্টোর একে ২০১৯ সালের “Best popular vote game” নামক অ্যাওয়ার্ড দিয়েছে।

টিকটক কিভাবে তৈরি হলো? টিকটক কত বড়?

Call Of Duty Mobile

কল অফ ডিউটি প্রধানত একটি পিসি গেম। তবে ২০১৯ সালের মার্চ মাসে এই গেমের মোবাইল ভার্সন রিলিজ করার ঘোষণা দেওয়া হয়। তারপর একই সালের অক্টোবর মাসের ১ তারিখে একযোগে Android এবং iOS এর জন্য গেমটি “Call Of Duty: Mobile” নামে রিলিজ দেওয়া হয়। কল অফ ডিউটি একটি অনলাইন মাল্টিপ্লেয়ার শুটার গেম। গেম প্লে অনেক হাই ক্লাস যেখানে আপনি 3D গ্রাফিক্স এবং HD কোয়ালিটি কাস্টমাইজিং গেম কনসোল কন্ট্রোল পাবেন। এখানে আপনি যেমন সিঙ্গেল বা টিম হিসেবে খেলতে পারবেন তেমনি চাইলে শুধু স্নাইপার ভার্সেস স্নাইপার ব্যাটেল করতে পারবেন। অনলাইন গেম প্লের দিক দিয়ে অনেকেই কল অফ ডিউটিকে পাবজি থেকে এগিয়ে রাখে। তবে কল অফ ডিউটি এখনো পাবজির সাথে মার্কেটে যুদ্ধ করছে। কল অফ ডিউটি মোবাইল গেমটি তৈরি করেছে TiMi Studious যা চায়না গেম কোম্পানি Tencent Games এর অধীনস্থ একটি কোম্পানি। এছাড়া এই গেমটি স্মার্টফোনের জন্য রিলিজ করেছে Activision এবং Garena নামক প্রতিষ্ঠান।

AngryBird

অ্যাংরি বার্ড একটি সিঙ্গেল প্লেয়ার পাজল এবং স্ট্রাটেজি শুটার গেম। এখানে কিছু পাখা ছাড়া রাগী পাখি থাকে যাদের প্রধান কাজ হলো টার্গেটে থাকা পিগদের হত্যা করা। একটি প্লেয়ার যত বেশি পিগ মারতে পারবে তার পয়েন্ট তত বাড়বে। লেভেল ক্রস করার পুরস্কার হিসেবে মাঝে মাঝেই বিশেষ পাওয়ার সহ নতুন বার্ড পাওয়া যাবে। এটি অনেক মজার একটি গেম। গ্রাফিক্স, গেম প্লে, কন্ট্রোল সব মিলিয়ে অ্যাংরি বার্ড অনেক ভালো একটি গেম। এই গেমের উপর নির্ভর করে একটি মুভি যা দ্য অ্যাংরি বার্ড মুভি নামে পরিচিত তা ২০১৬ সালে রিলিজ হয়েছিল এবং ২০১৯ সালে এর সিকুয়েল দ্য অ্যাংরি বার্ড মুভি রিলিজ হয়। যাহোক, অ্যাংরি বার্ড গেমটি তৈরি করেছে Rovio Entertainment নামক প্রতিষ্ঠান।

Minecraft

মাইনক্রাফট একটি স্যান্ডবক্স এবং সারভাইবল ভিডিও গেম। ২০১১ সালের ১৮ নভেম্বর মাইনক্রাফট গেমটি রিলিজ হয়। শুরুর দিকে শুধু ডেক্সটপের জন্য পাওয়া গেলেও এখন মোটামুটি সকল প্লাটফর্মের জন্য মাইনক্রাফট পাওয়া যায়। গেমটির নির্মাতা মোজাং যা সুইডেন ভিত্তিক একটি ভিডিও গেম তৈরির প্রতিষ্ঠান। এটি সর্বকালের বেস্টসেলিং ভিডিও গেম এবং একে সর্বকালের সেরা ভিডিও গেমও বলা হয়। ২০২০ সালের তথ্য মতে মাইনক্রাফটের প্রতি মাসে ১২০ মিলিয়নের মত অ্যাক্টিভ ইউজার আছে। এই গেমে আপনি আপনার চিন্তা শক্তি কাজে লাগিয়ে যা ইচ্ছা তাই তৈরি করতে পারবেন। আপনি ইচ্ছা করলে মন মত আপনার নিজের দেশ তৈরি করতে পারবেন। মাইনক্রাফট সিঙ্গেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার উভয় ফরম্যাটে খেলা যায়।  

Asphalt 9: Legends

অ্যাসফল্ট একটি রেসিং গেম সিরিজ যা Gameloft গেম কোম্পানির তৈরি। অ্যাসফল্ট ৯ এই সিরিজের লেটেস্ট গেম যা ২০১৮ সালের ২৫ জুলাই বিশ্বব্যাপী রিলিজ দেওয়া হয়। যারা রেসিং গেম খেলতে পছন্দ করেন তাদের কাছে অ্যাসফল্ট ৯ একটি উপযুক্ত চয়েস। কারণ এর গ্রাফিক্স এবং কন্ট্রোল অনেক ভালো এবং স্মুথ। বিশেষ করে এর অটোপাইলট মুড অনেক কার্যকরী। অ্যাসফল্ট ৯ বুলেট ফিজিক্স ইঞ্জিন এবং জেট ইঞ্জিন নামক গেম ইঞ্জিন ইউজ করে যা নিঃসন্দেহে গতির দিক দিয়ে সেরা। প্লে ষ্টোরে এর বর্তমান রেটিং ৫ এর মধ্যে ৪.৪ যার বেশীরভাগ ৫ স্টার রিভিউ।

Pokemon Go

পোকেমন গো হলো পোকেমন সিরিজের একটি পপুলার গেম। এটি ২০১৬ সালের ৬ জুলাই রিলিজ হয়। এখানে গেমারকে তার পছন্দমত একটি পোকেমন খুঁজে বের করে তাকে ট্রেইনিং দিতে হয়। তারপর এই পোকেমন দিয়ে গেমার অন্য পোকেমন ধরা বাদেও অন্য গেমারের পোকেমনের সাথে যুদ্ধে করতে হয়। বর্তমানে পোকেমন গো গেমে মোট পোকেমন স্পেসিসের সংখ্যা ৬০০ যা গেম রিলিজের সময় ছিল মাত্র ১৫০টি। পোকেমন গো একটি অগ্মেন্টেড রিয়েলিটি এবং লোকেশন নির্ভর গেম। গেমটি প্রিমিয়াম বিজনেস ফলো করে যেখানে আপনি এর ট্রায়াল বা লিমিটেড ভার্সন খেলতে পারবেন। পোকেমন গো গেমটি জাপানী কোম্পানি Nintendo এবং আমেরিকান কোম্পানি Niantic এই দুটি কোম্পানির কোলাবরেশনে নির্মিত।

Brothers: the tale of two sons

ব্রাদার্স একটি সিঙ্গেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার অ্যাডভেঞ্চার গেম। ২০১৬ সালের ২৬ মে বিশ্বব্যাপী এন্ড্রয়েডের জন্য গেমটি রিলিজ দেওয়া হয়। ব্রাদার্স গেমের মূল কাহিনী হলো এখানে তাদের বাবার রোগের ওষুধ খুঁজতে দুই ভাইকে একটি অ্যাডভেঞ্চারে পাঠানো হয়। যাদের এই জার্নিকে কেন্দ্র করেই গেমটি বানানো। এখানে অ্যাডভেঞ্চারের পাশাপাশি মনস্টার কিল করে এবং নতুন নতুন অনেক বিষয় শেখে। পুরো গেমে অনেক নতুন নতুন বিষয় তুলে ধরা হয়েছে এবং একাধারে রোমান্স এবং ইমোশন দিয়ে কাহিনী বর্ণনা করা হয়েছে। ব্রাদার্স গেমটি সুইডেনের Starbreeze Studios এর তৈরি। বর্তমানে গেমটি সব প্লাটফর্মের জন্য পাওয়া যায়।

কীভাবে স্লো কম্পিউটার ফাস্ট করা যায়?

Genshin Impact

জেনেসিস ইমপ্যাক্ট একটি সাম্প্রতিক সময়ের গেম। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে এন্ড্রয়েড সহ মোট চারটি প্ল্যাটফর্মের জন্য গেমটি রিলিজ দেওয়া হয়। চায়নার সাংহাই ভিত্তিক miHoYo নামক একটি ভিডিও গেম কোম্পানি জেনেসিস ইমপ্যাক্ট তৈরি ও রিলিজ করে। এটি একটি অ্যাকশন রোল প্লেয়িং গেম যা সিঙ্গেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার উভয় মুডে খেলা যায়। তবে মাল্টিপ্লেয়ার মুডে সর্বোচ্চ চার জনের সাথে খেলতে পারবেন। পুরো গেমের গল্প সাজানো হয়েছে Teyvat নামক একটি ফ্যান্টাসি দুনিয়া নিয়ে। যেখানে দুজন  জমজ ভাই Teyvat এর গড দ্বারা আলাদা হয়ে যায়। হারানো ভাইকে খুঁজে বের করাই এই গেমের উদ্দেশ্য। 

Fortnite

ফর্টনাইট পিসি এবং কনসোল এর জন্য একটি ব্যাপক জনপ্রিয় গেম। এপিক গেম নামক একটি আমেরিকান ভিডিও গেম কোম্পানি ফর্টনাইট গেম ডেভেলপ করেছে। পিসি এবং কনসোল ভার্সনে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর তারা ২০১৭ সালে গেমটি এন্ড্রয়েড এর জন্য রিলিজ করে। এটি পাবজি এবং ফ্রী ফায়ারের মত একটি ব্যাটেল রয়েল গেম। প্রতিটি ম্যাচে সর্বোচ্চ ১০০ জন প্লেয়ার পার্টিসিপেট।

প্লে ষ্টোরে আপনি খোঁজ করলেই হাজার হাজার গেম পাবেন। এগুলোর মধ্যে কোনটি ভালো এবং খেলে মজা পাওয়া যাবে তা নির্ধারণ করা কঠিন। তবে এখানে আমরা এন্ড্রয়েডের সব থেকে পপুলার ১০টি গেমকে শর্টলিস্ট করতে চেষ্টা করেছি । আশাকরি লেখাটি পড়ে সেরা গেম নির্ধারণ করতে আপনার অনেক হেল্প হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Reply